ইমামের পিছনে নামাজ আদায়কারি সূরা ফাতিহা পড়বে কিনা ? (দলীল সহ)


একা নামাজ আদায়কারী সূরা ফাতিহা  পড়বে কিনা:

আগে জেনে নেয়া যাক ,মুনফারিদ কাকে বলে?
একা নামাজ আদায়কারীকে মুনফারিদ বলে।
মুনফারিদ প্রতি রাকাআতে সূরা ফাতিহা পড়বে। 
হযরত উবাদা ইবনে সামিত (রা.) থেকে বর্ণিত, 
নবী কারীম সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম  বলেন-

لاصلاة لمن لم یقرء بفاتحة الکتاب۔
"যে সূরা ফাতিহা পড়ে না তার নামাজ হয়না।"(সহীহ মুসলিম-১/১৬৯)

সাহাবায়ে কিরাম, তাবেয়ীন ও মুহাদ্দিসীনেরা ব্যাখ্যায় এ হাদিস  একা নামাজ আদায়কারী
সম্পর্কে এসেছে।
আর তারাই ছিলেন নবী কারীম সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লামের হাদীসের মর্ম সম্পর্কে সর্বাধিক অবগত। 

ইমাম তিরমিযী (রহ.) বলেন-
" নবী কারীম সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লামের এই হাদিস  এর মর্ম হল,
কেউ যখন একা নামাজ পড়ে তখন সুরা ফাতিহা পড়া ছাড়া নামাজ হয় না। এর দলীল হযরত জাবির (রা.) এর হাদীস। তিনি বলেছেন, 'যে নামাজে সূর ফাতিহা পড়ে না তার নামাজ হয় না তবে যদি ইমামের পিছনে ইকতিদা করে।'
ইমাম আহমদ (রহ.) বলেন,
নবী কারীম সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লামের
সাহাবী উপরোক্ত  হাদীসের এই ব্যাখ্যা করলেন যে, এই বিধান একা নামাজ আদায়কারীর জন্য প্রযোজ্য।"(সুনানে তিরমিযী -১/৪২)

২.হযরত সুফিয়ান ছাও রী (রহ.) ও হাদীসটির এ ব্যাখ্যা করেছেন। হযরত উবাদা ইবনে সামিত (রা.) এর সূত্র এই হাদীস বর্ণনা করার পর আবু দাউদ (রহ.) বলেন-
"সুফিয়ান ছাওরী (রহ.) বলেছেন, 'হাদীসে ওই নামাজীর কথা বলা হয়েছে যে একা নামাজ আদায় করে'।" (সুনানে আবু দাউদ-১/১১৯)

এ বর্ণনাগুলো থেকে পরিষ্কার হয় যে, সাহাবায়ে  কিরাম, সালাফে সালেহীন ও মুহাদ্দিসীনে কিরামের মতে উপরোক্ত হাদীস একা নামাজ আদায়কারী সম্পর্কে এসেছে।

অতএব এই হাদীস থেকে কোনোভাবেই প্রমাণ করা যায় না যে, ইমামের পিছনে নামাজ আদায়কারীরকেও সূরা ফাতিহা পড়তে হবে।



একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

1 মন্তব্য

মতামত লিখুন ! আপনার মতামত আমাদের জন্য গুরুত্বপূর্ণ ।