ওজু ভঙ্গের কারণ সমূহ?


ওজু ভঙ্গের কারণ সমূহ

ওজু ভঙ্গের কারণ বারোটিঃ

(১) মলদ্বার ও মুত্রদ্বার থেকে যা কিছু বের হয়, 

[বি.দ্র. তবে  বিশুদ্ধতম অভিমত অনুযায়ী, বিষেশ কোন কারণে মুত্রদ্বার থেকে নির্গত বাবুর কারণে ওজু ভঙ্গ হবে না।]

এবং নিম্নে বর্ণিত এসকল কারণে ওজু ভঙ্গ হয়--
(২) রক্তহ্মরণ ব্যতিরেকে সন্তানের জন্ম,
(৩) মুত্রদ্বার ও মলদ্বার ব্যতীত অন্য কোন স্থান থেকে প্রবাহিত নাপাক বস্তু, যেমন= রক্ত, পুজো।

(৪) খাবার, পানি, জমাট রক্ত অথবা পিত্তপানি  মুখভরে বমি করা; অর্থাৎ এ পরিমান বমি হওয়া, যাতে অতিকষ্ট ব্যতিরেকে মুখ বন্ধ রাখা সম্ভব হয় না। এটাই বিশুদ্ধ তম অভিমত।
একই কারণে কিছু কিছু করে একাধিকবার বমি হলে ভিন্ন ভিন্ন বমিগুলো একত্র করে তার পরিমাণ অনুমান করতে হবে।

(৫) থথুু মিশ্রিত রক্ত, যা পরিমাণে থুথুর চেয়ে বেশি হয় অথবা থুথুর সমপরিমাণ হয়।
(৬) এমন নিদ্রা/ঘুম যার ফলে নিতম্ব ভূমিতে স্থির না থাকে।
(৭) ঘুমন্ত ব্যক্তি জাগ্রত হওয়ার পূর্বে তার নিতম্ব উপরে উঠে যাওয়া, এতে যদি পরে নাও যায় তবুও ওজু ভঙ্গ হয়ে যাবে। এটা জাহের রেওয়াতের অভিমত।

(৮) বেহুশ হয়ে যাওয়া,
(৯) উন্মাদ হয়ে যাওয়া,
(১০) নেশাগ্রস্ত্র হওয়া,
(১১) রুকু সিজদা বিশিষ্ট নামাজে প্রাপ্তবয়স্ক জাগ্রত ব্যক্তির অট্রহাসি,  যদি সে এ অট্রহাসি দ্বারা নামাজ সমাপ্ত করার ইচ্ছা করে,  তবুও এর দ্বারা ওজু ভঙ্গ হয়ে যাবে।

(১২) কোন আবরণ ব্যতরিরেকে দন্ডায়মান পুরুষাঙ্গ দ্বারা যোনি স্পর্শ করা।


একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্য